রেসিপি

রাইস কুকারে ঝরঝরে ভাত রান্নার কৌশল

rice

যাদের রান্না করার অভিজ্ঞতা আছে তারা শিরোনাম দেখে এরই মধ্যে মুখ বাঁকিয়ে ভাবছেন, এটা আবার কোনো বিষয় হল! তবে যারা রান্নায় অনভিজ্ঞ তারা চাল আর পানির পরিমাণ নিয়ে হয়ত হিমশিম খান, সেখানে ঝরঝরা ভাত তো অনেক দূরের বিষয়। এক্ষেত্রে রাইস কুকার বলতে গেলে নবিশ পাচকদের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ। তবে রাইস কুকারে ঝরঝরে ভাত রান্না করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়। তো চলুন রাইস কুকারে ঝরঝরে ভাত রান্নার কৌশল দেখে নেয়া যাক।

রাইস কুকারে ভাত রান্না করতে সাধারণত এক কাপ চালে দুই কাপ পানি লাগে। অর্থাৎ পানি দিতে হবে চালের দ্বিগুণ। তবে পাত্রের আকার, চালের জাত, চুলার তাপ ইত্যাদির তারতম্যে এই হিসাব হেরফের হতে পারে। প্রথমে কুকারের ঢাকনা উঠিয়ে ভেতরের বল বাটিটা বের করে নিন। দিতে হবে পরিমাণমতো চাল এবং পানি। পাত্রের তলা ভালোভাবে মুছে নিয়ে বসিয়ে দিন কুকারের ভেতরে। এবার চালু করে দিন যন্ত্রটি। ২০ থেকে ২৫ মিনিটেই তৈরি হয়ে যাবে ঝরঝরে ভাত।

বসা ভাত রান্না: এক পট চাল নিলে তাতে তিন পট পানি দেবেন। ফুটে উঠলে জ্বাল কমিয়ে দিন, এবং খুন্তি বা চামচ দিয়ে ভাত নেড়ে দিতে থাকুন। ভাত শুকিয়ে গেলে কিছুক্ষণ দমে রেখে নামিয়ে নিন। হয়ে গেল শুকনো ঝরঝরে বসা ভাত; মাড় গালার কোন ঝামেলাই নেই। বসা ভাত ঝরঝরে করতে চাইলে প্রয়োজনের চাইতে সামান্য একটু পানি কম দিন।

মাড় ফেলে ভাত রান্না: যদি মাড় ফেলে ভাত রান্না করতে চান, তাহলে ভাত রান্নার সময় প্রচুর পানি ব্যবহার করুন। যতটা চাল নেবেন তার অন্তত ৪/৫ গুণ পানি দিবেন। কেননা চালে থাকে স্টার্চ, পানি কম হলে সেটার কারণে ভাত আঠা আঠা হয়ে যায়। চাল ফুটে গেলে চেক করে মাড় ফেল দিন। এরপর ১০-১৫ মিনিট রেখে দিন। বেশি পানিতে রান্না করা ভাত এমনিতেই ঝরঝরে হবে।

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (2 votes, average: 5.00 out of 5)
Loading...

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয় পোস্ট

To Top